এমপি বদি-সিআইপি শুক্কুর ও মাওলানা মুজিবের প্রতিবাদ

বার্তা পরিবেশক: গত কিছুদিন ধরে দেশের স্থানীয়, জাতীয়, আঞ্চলিক বিভিন্ন গণমাধ্যমে ভয়ংকর মাদক ইয়াবা সংক্রান্ত সংবাদগুলোতে নিজেদের নাম প্রকাশিত হওয়ায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন উখিয়া-টেকনাফ থেকে নির্বাচিত জাতীয় সংসদ সদস্য আলহাজ্ব আবদুর রহমান বদি ও তার দুই ছোট ভাই আব্দু শুক্কুর এবং টেকনাফ পৌরসভার প্যানেল মেয়র মাওলানা মুজিবুর রহমান। শুধু প্রতিবাদ নয়, পত্রিকায় পাঠানো বিবৃতিতে উক্ত ৩ ব্যক্তির দু’জনই চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দিয়ে ঘোষণা দিয়েছেন, এমপি বদি ও তার পরিবারের কেউ যদি ইয়াবা ব্যবসা করে এরকম কেউ প্রমাণ করতে পারে নীতি ও নৈতিকতার খাতিরে তাদের মধ্যে সাংসদ বদি ও প্যানেল মেয়ার মাওলানা মুজিব পদত্যাগ করবেন।

বাংলাদেশের ইয়াবা গডফাদার সাইফুল এখনো অধরাঃ নৌ ও স্থল পথে সমান তালে চলছে ব্যবসা


ফরিদুল মোস্তফা খানঃ সর্বনাশা ইয়াবা ব্যবসায় জড়িত টেকনাফের শীর্ষ এক ব্যবসায়ী আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর ক্রসফায়ারে নিহতসহ আরো বেশ কয়েকজন বাঘা বাঘা মাদক সম্রাটের গ্রেপ্তারের পরও নিজের অবস্থান টিকিয়ে রেখে স্থল ও নৌ পথে ভয়ংকর এই ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছেন, বাংলাদেশের ইয়াবা গড ফাদার সাইফুল করিম ওরফে হাজী সাইফুল। ফলে ক্রমেই নিয়ন্ত্রণহীন হয়ে পড়া ভয়ংকর উক্ত মাদক ইয়াবা ব্যবসা সম্ভবত বাংলাদেশ থেকে আর নির্মূল করা যাবে না। আইন শৃঙ্খলা বাহিনী ও রাষ্ট্রীয় সব যন্ত্র ট্যাবলেটটি প্রতিরোধে যতই কড়াকড়ি ভূমিকা পালন করে সুচতুর ইয়াবা ব্যবসায়ীরা ততই কৌশল পাল্টিয়ে প্রতিদিন সীমান্তের ৪৩ পয়েন্ট দিয়ে বানের পানির মতো ঢুকাচ্ছে ট্যাবলেটটি। সীমান্ত এলাকায় ৮টি সংগঠনের ব্যানারে ৩৭টি কারখানা প্রতিদিন প্রায় ৩০ লাখেরও বেশি প্রাণঘাতি এই মাদক সরবরাহ দিচ্ছে ব্যবসায়ীরা। এ কাজে জড়িত ইয়াবা গডফাদার হাজী সাইফুলসহ বাঘা সব ইয়াবা ব্যবসায়ীরা টেকনাফের স্থায়ী ঠিকানা ছেড়ে এখন বন্দর নগরী চট্টগ্রাম ও রাজধানী ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে গড়ে তুলেছেন আবাস।

সৈকতে ১০ হাজার মিটার কারেন্ট জাল পুড়িয়ে দিয়েছে ভ্রাম্যমান আদালত

 নিজস্ব প্রতিবেদক:
কক্সবাজার সমুদ্র উপকূলে পোনা নিধনে ব্যবহৃত ১০ হাজার মিটার কারেন্ট জাল পুড়িয়ে দিয়েছে ভ্রাম্যমান আদালত। জেলা প্রশাসক রুহুল আমিনের নির্দেশে বৃহস্পতিবার সদর ও রামু উপজেলাধীন দরিয়ানগর এলাকায় পরিচালিত হয় উক্ত অভিযান। মৎস্য সংরক্ষণ আইনে পরিচালিত উক্ত অভিযানে অংশ নেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ আনোয়ার হোসেনের নেতৃত্বে পরিচালিত ভ্রাম্যমান আদালতের একটি টীম। এসময় রামুর উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা মোঃ মশিউর রহমান উপস্থিত ছিলেন। জানা গেছে, সকালে ভ্রাম্যমান আদালত কক্সবাজার সদরের ডায়াবেটিক পয়েন্ট থেকে শুরু করে লাবনী পয়েন্ট, সুগন্ধা পয়েন্ট, কলাতলী পয়েন্ট হয়ে রামু উপজেলাধীন দরিয়ানগর পর্যন্ত উক্ত অভিযান পরিচালনা করেন। এসময় উক্ত এলাকায় সাগরে বাগদা চিংড়ি পোনা আহরণরত অবস্থায় কোন ব্যক্তিকে পাওয়া যায়নি এবং পোনা ধরার জালও পাওয়া যায়নি।

সন্ত্রাস আতংকে হোয়াইক্যংয়ে ব্যবসায়ী পরিবার দিশেহারা ঃ বিদ্যালয়ে পাঠাতে পারছেন না ২ সন্তান

নিজস্ব প্রতিবেদক: বিপথগামী নিজ স্ত্রী, শ্বশুর গোষ্ঠী ও গ্রাম্য ২০/২৫ জন ইয়াবা ব্যবসায়ী সন্ত্রাসীদের অত্যাচারে অতিষ্ট হয়ে উঠেছেন টেকনাফ উপজেলার হোয়াইক্যং ইউনিয়নের হতদরিদ্র এক ব্যবসায়ী। শুধু তাই নয়, ইউনিয়নের খারাংখালী এলাকার উক্ত ব্যবসায়ী দু’সন্তান নিয়ে চরম নিরাপত্তাহীনতায় মানবেতর জীবন যাপনও করছেন। সন্ত্রাসীদের অব্যাহত হুমকির কারণে বিদ্যালয়ে পাঠাতে পারছেন না প্রিয় দুই সন্তানকে।

সংসদে লবন আমদানী নিষিদ্ধের দাবি এমপি কমলের

ডেস্ক রিপোর্ট: জাতীয় সংসদের প্রথম অধিবেশনের ৫ম ও ৬ষ্ট দিনে লবন আমদানি নিষিদ্ধকরণ ও কক্সবাজার পৌরসভাকে সিটি কর্পোরেশনে উন্নীকরণের উপর দাবী জানিয়ে পৃথক পৃথকভাবে বক্তব্য রেখেছেন কক্সবাজার-৩ আসনের এমপি সাইমুম সরওয়ার কমল। তিনি সংসদের প্রথম অধিবেশনের ৫ম দিনে শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমুর উদ্দেশ্যে তার বক্তব্যে বলেন, বাংলাদেশের শতকরা ৯৯ভাগ লবন কক্সবাজার জেলায় উৎপাদন হয়। তৎমধ্যে প্রায় অর্ধেকভাগ লবন কক্সবাজারের সদর উপজেলায় উৎপাদন হয়। বিদেশ থেকে লবন আমদানীর ফলে কক্সবাজারের লবন চাষিরা লবনের কাঙ্খিতমূল্য থেকে বঞ্চিত হচ্ছে, পাশাপাশি অপার সম্ভাবনাময় এ শিল্প বড় ধরনের ক্ষতির সম্মুখীন হচ্ছে। লবন শিল্পের উপর তার গঠন মূলক বক্তব্য শুনে শিল্পমন্ত্রী বিষয়টি অত্যন্ত গুরত্বের সাথে দেখবেন বলে জানান।

কক্সবাজার সৈকতে প্যারাসুট দিয়ে গলাকাটা ব্যবসা

স্টাফ রিপোর্টার: বিশ্বের দীর্ঘতম সমুদ্র সৈকত কক্সবাজারে পর্যটকদের বিনোদনের জন্য এবার নতুন করে ‘প্যারাসুট’। স্যাটেলাইট ভিশন সি স্পোর্টস নামের একটি ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠান সৈকত এলাকায় এ প্যারাসুটের সংযোজন ঘটায়। তবে অতিরিক্ত অর্থ আদায়ের গ্যাড়াকলে পড়ে প্যারাসুটের আনন্দ উপভোগ করতে পারছেনা অহরহ পর্যটকসহ স্থানীয়রা। অতিরিক্ত ভাড়া আদায়ের অভিযোগ ওঠলেও এই প্যারাসুট বর্তমানে সৈকত এলাকায় খুবই জনপ্রিয় হয়ে ওঠেছে।

টেকনাফ স্থল বন্দর দিয়ে মিয়ানমার থেকে মাছ আমদাণী হ্রাস

টেকনাফ প্রতিনিধি: টেকনাফ স্থল বন্দরে রাজস্ব আয়ের অন্যতম মাধ্যম মিয়ানমার থেকে পণ্যের মধ্যে মাছ ও কাঠ আমদানি সবার শীর্ষে হলেও সাম্প্রতিক সময়ে মাছ আমদানি তুলনামুলক হ্রাস পেয়েছে। এ দুই আমদানি পণ্য থেকে সরকার বিপুল পরিমান রাজস্ব পেয়ে আসছে। ১৯৯৭ সাল থেকে মিয়ানমার থেকে মাছ আমদানি করছেন আমানত কর্পোরেশনের স্বত্বাধিকারী আশরাফ হোসেন মাসুদ। স্থল বন্দরে আমানত কর্পোরেশনের মাছ আমদানির দায়িত্ব নিয়োজিত ম্যানেজার মোঃ জাহাঙ্গির আলম জানান, কেরুনতলীতে স্থল বন্দর চালু হবার পর মাছ আমদানিতে রের্কড সৃষ্টি করেছিল। এতে সরকার বিপুল পরিমান রাজস্ব পেয়েছিল। কিন্ত বর্তমানে মাছ আমদানি হ্রাস পেয়েছে। এখন প্রতি মাসে স্থল বন্দর দিয়ে মিয়ানমার থেকে ২/৩টি কার্গোবোট মাছ আমদানি হচ্ছে। যা অতীতের তুলনায় অতি নগন্য।

সৈকত দখলমুক্ত করতে প্রশাসন মাঠে

নিজস্ব প্রতিবেদক: কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতের ঝাউবাগান দখলমুক্ত করতে উচ্ছেদ অভিযান শুরু করেছে জেলা প্রশাসন। রোববার বেলা ১২টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত সৈকতের ডায়াবেটিক, বালিকা মাদ্রাসা ও শৈবাল পয়েন্টের ঝাউবাগানে অবৈধ শতাধিক ঝুপড়ি উচ্ছেদ করা হয়েছে। এদিকে সৈকতে পর্যটকদের নিরাপদে ভ্রমণ ও বিড়ম্বনা এড়াতে সৈকতের ঝাউবাগানে ঝুপড়ি ঘর এবং বালিয়াড়িতে গড়ে ওঠা অবৈধ স্থাপনাগুলোও উচ্ছেদ করার দাবি জানিয়েছেন পর্যটন সংশ্লিষ্টরা। সৈকতে উচ্ছেদ অভিযানে নেতৃত্বে দেন কক্সবাজার সদরের সহকারী কমিশনার (ভূমি) মোঃ আবু হাসান ছিদ্দিক এবং তার সাথে ছিলেন পরিবেশ অধিদপ্তরের কর্মকর্তা ও পুলিশের একটি দল।
ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়ন (ডিইউজে)-এর নবনির্বাচিত সভাপতি আলতাব মাহমুদের হাতে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানাচ্ছেন দৈনিক কক্সবাজারবাণী সম্পাদক ও প্রকাশক ফরিদুল মোস্তফা খান। সম্প্রতি জাতীয় প্রেসক্লাবে দেয়া এই ফুলেল শুভেচ্ছা অনুষ্ঠানে পাশে দৈনিক আমাদের অর্থনীতি এবং আমাদের সময় ডটকম-এর বার্তা সম্পাদক রিমন মাহফুজকে দেখা যাচ্ছে।

জুলুমে বিপর্যস্ত দৈনিক কক্সবাজারবাণী ও সম্পাদকের শেষ কথা

ফরিদুল মোস্তফা খান: প্রিয় পাঠক, একজন প্রকৃত সাংবাদিকের কোন বন্ধু থাকে না। বস্তুনিষ্ঠ ও নৈতিকভাবে পেশাগত দায়িত্ব পালন করলে তিনি হয়ে পড়েন গণদুষমন। তাই সম্ভবত আমি ও আমার সম্পাদিত কক্সবাজারের সর্বাধিক পাঠক নন্দিত দৈনিক কক্সবাজারবাণীও এখন অনেকটা এই অবস্থায়। কারণ পেশাগত দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে গত ক’দিন আগে আমি প্রথম আলোর নিজস্ব প্রতিবেদক আবদুল কুদ্দুস রানার কিছু অপকর্মের তথ্য ফাঁস করেছিলাম। কিন্তু দূর্ভাগ্য শুধু এই অপরাধটির কারণে ক’দিন আগেও কক্সবাজারে যেসব আমার স্বজন ছিলেন, তারা কেউই এখন আমার সাথে কথা বলছেন না। ফোন দিলে রিসিভও করেন না। বিতর্কিত একজন আবদুল কুদ্দুস রানার পক্ষ অবলম্বন করতে গিয়ে শুধু কক্সবাজারবাণী ও ফরিদুল মোস্তফা ঠেকানোর জন্য সম্পূর্ণ অন্যায়ভাবে দূর্বলের উপর সবলের জুলুমের ন্যায় বিনাকারণে কক্সবাজারের প্রসিদ্ধ দুয়েকটি সাংবাদিক সংগঠন আমার মত অসহায় এক সাংবাদিকের বিরুদ্ধে জোট বেঁধেছেন।

প্রথম আলোর কক্সবাজার প্রতিবেদক আব্দুল কুদ্দুসের বিরুদ্ধে চাঁদাবাজি মামলা

নিজস্ব প্রতিবেদক: দৈনিক প্রথম আলোর কক্সবাজারস্থ নিজস্ব প্রতিবেদক আব্দুল কুদ্দুসের বিরুদ্ধে চাঁদাবাজি মামলা হয়েছে। বুধবার কক্সবাজার সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত নং-৩ এ মামলাটি দায়ের করেন কক্সবাজার থেকে প্রকাশিত দৈনিক কক্সবাজারবাণী’র পত্রিকার সম্পাদক ও প্রকাশক, জাতীয় দৈনিক আমাদের অর্থনীতি এবং আমাদের সময় ডটকমের আঞ্চলিক প্রধান ফরিদুল মোস্তফা খান।মামলার বাদি পক্ষে কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি সিনিয়র আইনজীবী এডভোকেট একে আহমদ হোসেন, এডভোকেট তৌহিদুল আনোয়ার, এডভোকেট সালামত উল্লাহ রানা, এডভোকেট মোক্তার আহমদ, সহকারী পাবলিক প্রসিকিউটর এডভোকেট খালেক নেওয়াজ ও এডভোকেট দেলোয়ারসহ ডজনখানেক আইনজীবী আদালতে উপস্থিত হয়ে বিজ্ঞ বিচারককে আসামী আব্দুল কুদ্দুসের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন।

কক্সবাজারবাণীর বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রকারীদের জন্য সম্পাদকের হুশিয়ারী

নিজস্ব প্রতিবেদক: কক্সবাজারের সর্বাধিক পাঠক নন্দিত দৈনিক কক্সবাজারবাণী’র কণ্ঠরোধ ও প্রকাশনা বন্ধসহ সম্পাদকের জানমালের ব্যাপক ক্ষতি করতে মরিয়া হয়ে উঠেছে একটি দুষ্টচক্র। এজন্যই নিজেদের সৎ সাংবাদিক পরিচয় দিয়ে ওই অসাধু চক্রটি জোট বেধেছে। শুধু তাই নয়, তারা কক্সবাজারবাণী’র প্রকাশনা বন্ধ এমনকি পত্রিকাটির যেন কেউ বিক্রি না করেন সেজন্যও গতকাল এক সমাবেশ করেছেন।

আমাদের কক্সবাজার পত্রিকার ভাড়াটিয়া সম্পাদক রফিককে মাদক সেবন করতে বারণ করায় থানায় জিডি!

নিজস্ব প্রতিবেদক: নিজে দু’কলম লিখতে জানেন না। আমার সম্পাদিত দৈনিক কক্সবাজারবাণী ছাড়া কোথাও একদিনও গোলামি করেননি। তবুও শখের বসে দৈনিক আমাদের কক্সবাজার পত্রিকার ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক বনে যাওয়া রফিক আল মাহামুদকে গালাগালি করে এমন কোন অপরাধ করেননি দৈনিক কক্সবাজারবাণী সম্পাদক ফরিদুল মোস্তফা খান। তিনি জানান, রফিক আমার বন্ধু। তাই তার জীবন রক্ষা করা আমার নৈতিক দায়িত্ব।

নিজের বিরুদ্ধে মামলা তাই আমার শাস্তি চাই

ফরিদুল মোস্তফা খান: মঙ্গলবার আমার বিরুদ্ধে সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত, কক্সবাজারে একটি মানহানির মামলা হয়েছে। বিজ্ঞ বিচারক মামলাটির বাদি প্রথম আলোর কক্সবাজার অফিস প্রধান আবদুল কুদ্দুস রানার আবেদনের প্রেক্ষিতে আমার জন্য জারি করেছেন সমন। এর আগে কক্সবাজার থেকে প্রকাশিত দৈনিক আমাদের কক্সবাজার পত্রিকার ভাড়াটিয়া সম্পাদক রফিক আলম মাহমুদও সদর মডেল থানায় আমার জন্য একটি সাধারণ ডায়েরি করেছেন। সবকিছু মিলে প্রিয় পাঠক, কেন জানি আজ নিজেকে খুব বেশি অপরাধী মনে হচ্ছে! তাই স্বাভাবিকভাবে নিজের শাস্তির প্রত্যাশায় লেখাটি শুরু করলাম। প্রিয় পাঠক, কক্সবাজারে সাংবাদিক পরিচয়ী এই দুই ব্যক্তি ও আমাকে পৃথক পৃথকভাবে আপনারা খুব ভাল করেই চেনেন। তাই দুই ব্যক্তির দায়েরকৃত অভিযোগের আসামি হিসেবে আমি আজ আপনাদের কাঠগড়ায় দাঁড়িয়ে নিজের শাস্তি চাই। 

এমপি বদি ও কক্সবাজারবাণীর বিরুদ্ধে দুষ্টচক্রের ষড়যন্ত্র

উখিয়া-টেকনাফে হলুদ সাংবাদিক আবদুল কুদ্দুস রানা অবাঞ্ছিত

বার্তা পরিবেশক: বৈধ ব্যবসায় সমৃদ্ধশালী হয়ে উঠা উখিয়া-টেকনাফের এমপি আবদুর রহমান বদির বিরুদ্ধে দুস্কৃতকারীদের ষড়যন্ত্র অব্যাহত রয়েছে। একই সাথে চক্রটি কক্সবাজার থেকে প্রকাশিত দৈনিক কক্সবাজারবাণী পত্রিকার সম্পাদকের জানমালের ব্যাপক ক্ষতির অপচেষ্টা চালাচ্ছে। নির্ভরযোগ্য একটি সূত্র জানিয়েছে, এজন্য কক্সবাজার শহরের গুটি কয়েক চাঁদাবাজ সাংবাদিক পরিচয়ী দুর্বৃত্ত একটি সাংবাদিক সংগঠনের নাম দিয়ে জেলা প্রশাসকের সাথে দেখাও করেছেন। তবে জেলা প্রশাসক বিষয়টি আইনগতভাবে দেখছেন বলে তাদেরকে কথা দিলেও অভিযোগ উঠেছে সাংবাদিক সংগঠনের নেতা পরিচয়ী ওই দুস্কৃত চক্র এমপি বদির সহায় সম্পদের অজুহাত তুলে নানা অপপ্রচারে মেতে উঠেছে। 

অবৈধপন্থায় সাগরপথে মালয়েশিয়া আদম পাচার করছে যারা

ডেস্ক রিপোর্ট: উখিয়ার সমুদ্র চ্যানেল দিয়ে সাগর পথে মালয়েশিয়া আদম পাচার উদ্ধেগ জনক হারে বেড়ে চলছে। রোহিঙ্গা সহ ১৩৫ জন দালাল আদম পাচারের সাথে জড়িত থাকার অভিযোগ থাকলেও তারা থেকে গেছে ধরা ছোঁয়ার বাইরে। গত ১ বছরে এসব দালালরা কমপক্ষে সহস্রাধিক মানুষ জীবনের ঝুঁকি নিয়ে মালয়েশিয়া পাচার করেছে। তৎমধ্যে কয়েক শতাধিক মানুষ এখনো নিখোঁজ রয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। স্বজন হারাদের আহাজারীতে গ্রাম গঞ্জের পরিবেশ ভারী হয়ে উঠলেও দেখার কেউ নেই। এক শ্রেনীর বেকার যুবক ও বর্তমান সরকারের আমলে বৌদ্ধ বিহার হামলা সহ বিভিন্ন রাষ্ট্রদ্রোহ মামলার আসামী হয়ে পালিয়ে বেড়ানো অনেক মানুষ স্বল্প ব্যায়ে সাগর পথে মালয়েশিয়া গমন করছে। বৈধ ভাবে একজন মানুষ মালয়েশিয়া গমন করতে কমপক্ষে তিন লাখ টাকার প্রযোজন পড়ে।

রাস্তায় অবৈধ ব্যাটারী রিক্সার রাম রাজত্ব, গিলছে বিদ্যুৎ

নুরুল আমিন হেলালী: পর্যটন নগরী খ্যাত কক্সবাজার পৌর শহরের প্রধান সড়কসহ অলিগলি ছেয়ে যাচ্ছে যন্ত্রচালিত অবৈধ ব্যাটারী রিক্সায় অভিযোগ রয়েছে এসব রিক্সার কারণে শহরের বিদ্যুতের অপচয় ঘটছে। অপরদিকে বাড়ছে যানজট ও দৈবাৎ দূর্ঘটনা। সরেজমিনে, শহরের বিভিন্ন এলাকা ঘুরে দেখা যায়, সাধারণ রিক্সার পাশাপাশি যন্ত্রচালিত এসব অবৈধ ব্যাটারী রিক্সা চলছে সমানতালে। সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কোন নিয়ন্ত্রণ না থাকায় এগুলোর সঠিক সংখ্যা জানাও দুষ্কর। এসব রিক্সার পেছনে পৌরসভার নম্বর প্লেটের পরিবর্তে অনেকটির গায়ে দেখা গেছে বিভিন্ন মালিকের নাম ও মোবাইল নাম্বার। জানতে চাইলে অনেক চালক জানাই, এটাই তাদের লাইসেন্স। প্রশাসনের সংশ্লিষ্ট কর্তা ব্যাক্তিরা শিকার করেছেন এসব রিক্সার অধিকাংশ অবৈধ। কিন্তু নীতিমালার সীমাবদ্ধতার অজুহাতে এগুলো নিয়ন্ত্রণের দায়দায়িত্ব নিতে চায় না সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ। 
অপরদিকে পৌর কর্তৃপক্ষ এগুলোকে বিবেচনা করছে যান্ত্রিক যান হিসেবে।

উখিয়ায় দালালসহ ৪ মালয়েশিয়াগামী আটক

উখিয়া সংবাদদাতা: উখিয়া থানা পুলিশ রোববার গভীর রাতে কুতুপালং বখতিয়ার মার্কেট এলাকায় অভিযান চালিয়ে মালয়েশিয়া আদম পাচারকারী চক্রের হোতা হাবিব ও মোহাম্মদ খলিলকে আটক করা হয়। পরে দালাল হাবিবের বাড়ীতে পুলিশ তল্লাশি চালিয়ে মালয়েশিয়াগামী যাত্রী কালা বদা মাঝি ও আবদুল মাজেদ মাঝিকে আটক করে। উখিয়া থানার ওসি জাহিদুল কবির জানান, আটককৃত দালালদের বিরুদ্ধে মানব পাচার আইনে মামলা রুজু করা হবে।

পর্যটকদের দৃষ্টি আকর্ষনে হিমছড়ি ন্যাড়া পাহাড়কে সবুজ বেষ্টনীতে রূপান্তর

নিজস্ব প্রতিবেদক: কক্সবাজার-টেকনাফ মেরিন ড্রাইভ সড়ক সংলগ্ন বিস্তৃর্ণ উঁচু পাহাড় গুলো বৃক্ষ শূণ্য হয়ে ন্যাড়া অবস্থায় পড়ে রয়েছে। সমুদ্র তীরবর্তী বন-বিভাগের অসংখ্য বিশাল আকৃতির পাহাড়ে কোন গাছপালা নেই। বৃক্ষহীন ন্যাড়া পাহাড় গুলো হাহাকার করছে। পর্যটনের অপার সম্ভাবনাময় হিমছড়ি এলাকা জুড়ে প্রাকৃতিক ভাবে গড়ে উঠা এসব পাহাড়ে বনায়নের মাধ্যমে সবুজ বেষ্টনীতে রূপান্তর করা হলে প্রাকৃতিক দুর্যোগ থেকে রক্ষার পাশাপাশি দেশি-বিদেশি পর্যটকদেরকে সৌন্দয্যবদ্ধন সক্ষম হবে। এ মুহুর্তে সবুজায়নের জন্য সংশ্লিষ্ঠ কর্তৃপক্ষকে সঠিক পরিকল্পনার গ্রহন করার প্রয়োজন বলে মনে করছেন পরিবেশবাদী সচেতন মহল।

রামুতে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ১,আহত ১৫

রামু প্রতিনিধি: কক্সবাজারের রামু উপজেলার রশিদনগর জেটির রাস্তার মাথা এলাকায় মিনিবাস চাপায় মো. সেলিম (৩৫) নামে এক ভ্যানচালক নিহত ও ১৫ জন আহত হয়েছেন। রোববার দুপুর ১টার দিকে চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কে এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত সেলিম কক্সবাজার সদর উপজেলার ভারুয়াখালী ইউনিয়নের ননামিয়া পাড়া এলাকার মৃত রমজান আলীর ছেলে। তাৎক্ষণিকভাবে আহতদের নাম-পরিচয় পাওয়া যায়নি। তাদের কক্সবাজার সদর ও স্থানীয় বিভিন্ন ক্লিনিকে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। এদের মধ্যে একজনকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।